ছড়া-কবিতা:: ভূত - শ্যামাচরণ কর্মকার


ভূত
শ্যামাচরণ কর্মকার

ভূত বলে কিছু হয় কি জানি না
তবু ভয় পাই ভূতে
নির্জন ঘরে ভয়ে ভয়ে ঢুকি,
ভয় করে একা শুতে।

রাতটাত হলে ভয় বেড়ে যায়
থমথম করে পাড়া
ঝিঁঝিদের ডাকে, বাদুড়ের ডাকে
ভয়ে হয়ে যাই সারা।

দেখলে এড়াই রেলের লাইন,
শ্মশান, মশান, কবর
ভূতরা সেখানে সংসার পাতে
লোকমুখে পাই খবর।

অমাবস্যায় যাই না কোথাও
যেতে করে ভয় ভয়
ঘুটঘুটে রাতে ভূত ঘোরে, হাঁটে
ভূতছায়া পাড়াময়।

ভূতকে দেখিনি কোত্থাও আমি
দেখিনি তাদের মুখ
ভূত খুব নাকি ভয়ানক হয়
দেখলে শুকোয় বুক?

তবু কেন সব ভূত-ভূত করে?
কী সাহস বলিহারি!
‘ভূত আছে’ এই কথা শুনলেই
ছড়াতেও দিই দাঁড়ি।
_____
ছবিঃ সুতীর্থ দাশ

No comments:

Post a comment