ছড়া-কবিতা:: ভূতের কাণ্ড - শ্যামাচরণ কর্মকার


ভূতের কাণ্ড
শ্যামাচরণ কর্মকার

চণ্ডীখুড়ো হাটের থেকে
ফিরছে সেদিন রাতে
ভাবেইনি সে পড়তে পারে
ভূত-পেরেতের হাতে
পথ নির্জন, অমাবস্যা
মিশকালো চারপাশ
পথ ধরেই আসা-যাওয়া
নিত্যি, বারো মাস
চণ্ডীখুড়োর শাড়ির দোকান
ভূতোডাঙার মোড়ে
ফিরছে তখন মেঠো পথে
সাইকেলেতে চড়ে
হঠাৎ দেখে ছায়ামূর্তি
থমকে দাঁড়ায় খুড়ো
চাদর ঢাকা ভূতের শরীর
দিব্যি আগামুড়ো
ভূত বলল ভীষণ কেঁদে,
বাঁচাও আমায় চাচা
তোমার ওপর দাঁড়িয়ে আছে
আমার মরা-বাঁচা
পরশু আমার মেয়ের বিয়ে
হয়নি কেনা শাড়ি
সব মিলিয়ে গোটা দশেক
কেমন করে পারি?
নুন আনতে পান্তা ফুরোয়
কূল পাই না ভেবে
গরিব আমি চাইছি দয়া
দশটা শাড়ি দেবে?
চন্ডীখুড়োর দয়ার শরীর 
বলল, এসো কাল
দেব শাড়ি, বেনারসী
এবং বরের শাল
ভূতের তখন সে কী খুশি
জানাল পেন্নাম
ভূত-সমাজেও ছড়িয়ে গেল
চণ্ডীখুড়োর নাম!
_____

No comments:

Post a comment