ছড়া-কবিতা:: সত্যি-মিথ্যা ভ্রম - ভাস্কর শীল


সত্যি-মিথ্যা ভ্রম
ভাস্কর শীল

ও দাদাভাই, চললে কোথা? বড্ড দেখি হুড়ো,
বলতে পারো খবরগুলোর ল্যাজ আছে না মুড়ো?
শুনছি নাকি বেজায় শীতে কাতুবুড়োর কাশি,
তেঁতুল জলে ভিজিয়ে গলা হজমোলা খায় বাসি।
কুমড়োপটাশ ধামসা বাজায়, গঙ্গারামের বিয়ে,
বুড়ির বাড়ি বর বসেছে টোপর মাথায় দিয়ে।
গঁদের আঠার পায়েস বানায় রামগরুড়ের ছানা,
মিঠে রোদের ফাজলামিতে ভুলেও হাসি মানা।
সকাল-সকাল ভীষ্মলোচন শীতের রোদে ছাদে,
হুলোর সাথে পাল্লা দিয়ে গুনকেলী রাগ ফাঁদে।
ল্যাজ ধরে ঐ ট্যাঁশগরুটার ডানপিটে সব ছেলে
ডিগবাজি খায় নামতা পড়ে, পাউরুটি-গুড় ফেলে।
পাগলা জগার ম্যাজিক দেখে বোম্বাগড়ের রাজা,
খুড়োর কলে ঝুলিয়ে রাখেন উচ্ছে বেগুন ভাজা।
আবার শুনি ষষ্ঠীচরণ শীতের ভয়ে কষে,
বেলুন ফোলায় হাজারখানেক শীর্ষাসনে বসে।
হুঁকোমুখোর কাণ্ড শোনো খড়ের আঁটি পেড়ে,
ছুঁচ খুঁজতেই দিন কেটে যায় কাঁচকলাটা ছেড়ে।
শ্যামের জামাই কেষ্টমোহন যার বাড়ি ঐ কালনা,
লেপ-কম্বল বাক্সে রেখে রোদ্দুরে দেন আলনা।
বাবুরামের বড্ড মজা, সাপগুলো ঘুম ঘোরে,
ব্যাঙের ছাতার পেটেন্ট নিয়ে ব্যাবসা চালায় ভোরে।
কাঠ-বুড়োটাও এই শীতেতে কাঠের গুঁড়োয় কড়া
পাক দিয়েছে উপুড় করে নলেন গুড়ের ঘড়া।
এসব কথা জানিয়ে গেল আদ্যানাথের মেসো
বলছি দাদা সময় পেলে যাচাই করে এসো।
_____
ছবিঃ সুতীর্থ দাশ

2 comments: