ছড়া-কবিতা:: হারানো রঙ - সুজাতা চ্যাটার্জী


হারানো রঙ
সুজাতা চ্যাটার্জী

একপশলা বৃষ্টি দিয়ে আকাশখানা ধুয়ে,
সেইখানেতে যেই দিয়েছে একমুঠো রোদ ছুঁয়ে,
এপার থেকে ওই পারেতে বড়ো এবং বাঁকা,
আকাশ জুড়ে সেই হয়েছে রামধনুটি আঁকা।
তার পরেতে মেঘের দেশে সবাই মিলে বলে,
বলতো ভাই কোথায় গেল লাল রঙটি চলে?
মেঘের রাজা ফুঁসছে যেন ভীষণরকম রাগে,
তার দেশেতে এমন চুরি কেউ করেনি আগে।
মেঘ-পেয়াদা চোর খুঁজতে সব ঘরেতে ঘোরে,
খুব শিগগির আনতে হবে রঙ-চোরকে ধরে।
চাঁদমামা তো রাত জেগেছে, এই গিয়েছে বাড়ি,
তার বাড়িতে দেখতে গেলে করেই দেবে আড়ি।
সুয্যিমামা গরম বেজায়, কেউ যায় না কাছে,
মেঘ-পেয়াদা ভয় পেয়েছে, দূরে দূরেই আছে।
শেষ যে হল দিনের বেলা, ফুরিয়ে এল আলো,
ভয়ের চোটে মেঘ-পেয়াদার মুখটি হল কালো।
ঠিক তখনই সুয্যিমামা, বলে ও ভাই শোনো,
লাল রঙটি হারায়নি গো, ভয় নেই যে কোনো
ভালোবাসার রং যে ওটা, এখন বড়োই ফিকে,
নিজের কাজেই ব্যস্ত সবে, তাকায় না ওই দিকে।
তাই নিয়েছি সকালবেলা ওই রঙটি ধার,
ছড়িয়ে দেব বিশ্ব জুড়ে প্রেমের উপহার।
তার পরেতে আকাশজোড়া অপূর্ব এক ছবি,
রাঙিয়ে দিয়ে বিশ্বটাকে, অস্ত গেলেন রবি
_____
অলঙ্করণঃ নচিকেতা মাহাত

No comments:

Post a comment